সরকার চাইলে সংসারটা সুখের হবে

প্রকাশিত: ২:০০ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০১৯

পাবলিক ভয়েস : জোর করে বিয়ে করেও সুখী সংসার গড়েছে এমন অসংখ্য নজির আছে দেশে। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ছিল সর্বজন স্বীকৃত প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন নিয়েও প্রশ্ন ও অভিযোগ আছে অনেকের। বিরোধীদলগুলো প্রায় সকলেই এই নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করেছে। পুনঃনির্বাচন দাবি করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করেছে মহাজোট। ৩ জানুয়ারি নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শপথগ্রহণে যায়নি ঐক্যফ্রন্টের কোনো সাংসদ। জাতীয় পার্টি প্রধান বিরোধীদল হিসেবে সংসদে থাকার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। জাতীয় পার্টির নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথও গ্রহণ করেছে।

৬ জানুয়ারি নতুন মন্ত্রিসভা গঠন হয়েছে এবং ৭ জানুয়ারি মন্ত্রী প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীদের শপথ গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। সরকার যদি জোর করে ক্ষমতা গ্রহণ করে থাকে, তবুও মনে করি সরকারের প্রতি গণমানুষের যে নেতিবাচক মনোভাব বা বিরোধী শক্তিগুলোর যে ক্ষোভ রয়েছে, পজিটিভ এবং কার্যকরী কিছু প্রশংসনীয় উদ্যোগের মাধ্যমে কিছুটা হলেও সরকার সেটাকে কাটিয়ে ওঠতে পারবে।

অনেক বিবাহ জোর করেও হয়। কনেপক্ষ প্রথমে রাজি না থাকলেও একসময় তাদের সংসারেও শান্তি নেমে আসে। এ ক্ষেত্রে বরপক্ষের উদারতা ও দায়িত্ববোধ বড় কাজে দেয়। স্ত্রীর অধিকার ও সম্মানের দিকে সজাগ দায়িত্ব পালন করলে সংসারে সুখ নেমে আসে। যেই কনে বরকে সহ্য করতে পারতো না, সেই কনে একসময় ঐ বরের জন্যই তার বাসায় ফেরার অপেক্ষায় থাকে। আর যদি বর দায়িত্ব পালনে উদাসীন থাকে তাহলে ঐ সংসার টিকে না।

সরকার চাইলে রাষ্ট্রীয় সংসারটাকেও এভাবে সুখী করে তুলতে পারে। রাষ্ট্রের সকল নাগরিকের অধিকার ও সম্মানের দিকে লক্ষ্য রেখে উদারতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে, তাহলে গণমানুষের ক্ষোভ ও নেতিবাচক মনোভাব ইতিবাচক মনোভাবে পরিণত হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদের মন্ত্রীসভার অধিকাংশই নতুন মুখ। পুরোনো হেভিওয়েট মন্ত্রী অনেকেই বাদ পড়েছেন। তাদের নিয়ে জনমনে ক্ষোভের অন্ত ছিল না। বাদ পড়েছে অনেক বিতর্কিতরাও। এর দ্বারা সরকার প্রথম ইতিবাচক কাজটিই করেছে বলে মনে করি। সরকারের নতুন মন্ত্রিপরিষদের মন্ত্রীরা যদি গণমানুষের ভাষা বুঝে কাজ করতে পারে, তাহলে আশা করি সরকারের হারানো ভাবমূর্তি কিছুটা হলেও রিকভারি করতে পারবে।

মন্তব্য করুন