আওয়ামীলীগে থাকা যাদের যুদ্ধাপরাধী মনে করে বিএনপি

প্রকাশিত: ৫:৩০ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮
আওয়ামীলীগে থাকা যাদের যুদ্ধাপরাধী মনে করে বিএনপি

বিশেষ প্রতিবেদক: আওয়ামীলীগে যুদ্ধাপরাধী আছে দাবি করে ২৩ জনের তালিকা দিয়েছে বিএনপি।

রোববার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী সে তালিকা প্রকাশ করেন।

তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তারা হলেন,

১.অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম:  ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও আইন প্রতিমন্ত্রী তিনি।

২. লে.কর্ণেল (অব) ফারুক খান: পর্যটন মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতা।

৩. ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন: ফরিদপুর– ৩ আসনের সংসদ সদস্য, মন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেয়াই।

৪. অ্যাডভোকেট মোসলেম উদ্দিন: ময়মনসিংহ ৬ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতা।

৫. সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী:  আওয়মী লীগের সংসদ উপনেতা ফরিদপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য।

৬. সৈয়দ জাফরউল্লাহ:  আওয়ামী লীগের প্রেসেডিয়াম সদস্য।

৭. মুসা বিন শমসের। আওয়ামীলীগ নেতা।

৮. মির্জা গোলাম কাশেম:  জামালপুর–৩ আসনের সংসদ সদস্য, যুবলীগের লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সরকার দলীয় হুইপ মির্জা গোলাম আযমের বাবা তিনি।

৯. এইচ এন আশিকুর রহমান: রংপুর ৫ আসনের সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় অর্থ সম্পাদক তিনি।

১০. মহিউদ্দিন খান আলমগীর: চাদপুর-১ আসনের সরকার দলীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তিনি।

১১. মাওলানা নুরুল ইসলাম: জামালপুরের আওয়ামীলীগের সাবেক সংসদ সদস্য ও সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী তিনি।

১২. মজিবর রহামান হাওলাদার: কুটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক তিনি।

১৩. আবদুল বারেক হাওলাদার: গোপালগঞ্জ কোটালীপাড়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রাফেজা বেগমের পিতা তিনি।

১৪. আজিজুল হক: গোপালগঞ্জ কোটালীপাড়া উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী রাফেজা বেগমের ভাই তিনি।

১৫. মালেক দাড়িয়া: গোপালগঞ্জ আওয়ামী লীগ নেতা।

১৬. মোহন মিয়া: গোপালগঞ্জ কোটালিপাড়া উপজেলা শ্রমিকলীগ সভাপতি তিনি।

১৭. মুন্সি রজ্জব আলী দাড়িয়া: আওয়ামী লীগে নেতা তিনিও।
১৮. রেজাউল হাওলাদারঃ কোটালিপাড়া পৌর মেয়র ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা এইচ এম অহেদুল ইসলামের ভগ্নিপতি তিনি।

১৯. বাহাদুর হাজরাঃ কোটালিপাড়া স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা ও পৌর মেয়র এইচ এম অহেদুল ইসলামের পিতা তিনি।

২০. আ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন সরদারঃ গোপালগঞ্জের এ পি পি ও আওয়ামী লীগ নেতা তিনি।

২১. হাসেম সরদার: অ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন সরদারের পিতা তিনি।

২২. আবদুল কাইয়ুম মুন্সি: জামালপুর বকশিগঞ্জ আওয়ামী লীগ সভাপতি অবুল কালাম আজাদের পিতা তিনি।

২৩. নুরুল ইসলাম-নুরু মিয়া: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেয়াই ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের পিতা তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী দাবি করেন, এদের সবার যুদ্ধাপরাধী হওয়ার ডকুমেন্ট আছে তাদের কাছে।

মন্তব্য করুন